Site Statistics
  • Total visitors : 17,841
  • Total page views: 23,765

Privacy Policy

ভলেন্টিয়ার হিসেবে যোগ দিতে চাইলে

0 Comments

ইতিমধ্যে আমরা একটা মানবিক কাজ, ভলেন্টিয়ারিং এ উৎসাহ দিয়ে একটি ব্লগ প্রকাশ করেছি।

আমাদের মনে হয় আপনারা যারা আমাদের ওই লেখাটি পড়েছেন তাদের সবাই কোনো না কোনো ভলেন্টিয়ারিং কাজের সাথে জড়িত বা ভলেন্টিয়ারিং শুরু করতে চাচ্ছেন। আর তার ধারাবাহিকতায় আমাদের আজকের এই আয়োজন।

আজকে আমরা আলোচনা করবো কিভাবে আপনি উপযুক্ত প্রতিষ্ঠানে ভলেন্টিয়ার হিসাবে যোগ দিতে পারেন।

প্রথমেই আপনাকে একটি ভলেন্টিয়ার প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করতে হবেঃ এর জন্য আপনি যে মাধ্যমে সেবা দিতে চান তা খুঁজে বের করবেন। যেমন: আপনি যদি প্রাণী ভালবাসেন, সেক্ষেত্রে আপনি কোন Animal shelter-এ কাজ করতে পারেন। যদি দেশ ও সমাজের শিক্ষাব্যবস্থা উন্নত করতে চান তাহলে কাজ করতে পারেন কোন সুবিধাবঞ্চিত বাচ্চাদের স্কুলে। আবার কেউ যদি ডাক্তার হতে চায় তবে তার ICDDRB, UNICEF ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের ভলেন্টিয়ার হিসেবে কাজ করতে হবে। তবে অবশ্যই কোনো না কোনো ব্লাড ডোনেশনের সাথে সবাইকেই থাকা উচিৎ।

আবার আপনি যদি লেখালেখিতে ভালো হন, আপনি কাজ করতে পারেন বিভিন্ন অলাভজনক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানে। বিনা পারিশ্রমিকে লিখে দিবেন তাদের গ্রুপ, পেজ ও ক্যাম্পেইন-এর জন্য। এটাও ভলেন্টিয়ার কাজের অন্তর্ভুক্ত।

যদি বাইরে গিয়ে ভলেন্টিয়ারিং করতে আপনার অসুবিধা হয় তবে এমন কোথাও কাজ করতে পারেন যারা অনলাইনে কাজ করছে।

বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান তাদের অনলাইন লেখালেখি, পোস্ট ডিজাইন ইত্যাদি নানা কাজে প্রচুর লোক নিয়োগ দেয়। হয়ে যেতে পারেন এরকম একজন অনলাইন ভলেন্টিয়ার।

নিজের সাথে যায় এমন কাজ নির্বাচন করতে হবেঃ চাইলেই যে কোন স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানে কাজ করা যায়। কিন্তু মাথায় রাখতে হবে, আমরা ঐসব প্রতিষ্ঠানেরই ভলেন্টিয়ার হতে চেস্টা করবো যেখানকার কাজ আমাদের স্যুট করবে এবং নিজের প্রত্যাশা পূরন হবে। বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্রতিষ্ঠান ভলেন্টিয়ার নেয় এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান, পরিবেশ রিলেটেড প্রতিষ্ঠান, সামাজিক সহযোগিতামূলক প্রতিষ্ঠান, প্রানী সংরক্ষণ জাতীয় প্রতিষ্ঠান, ইত্যাদি।

কারা কিভাবে কখন ভলেন্টিয়ার নিচ্ছে এসবের খবর রাখতে ওয়েবসাইট ব্যাবহার করতে পারেনঃ প্রায় কম বেশি সব প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ওয়েবসাইট আছে যেখানে তাদের প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এখন পর্যন্ত যাবতীয় কাজ, কর্মসূচি, প্রজেক্ট, যে সেবা তারা সমাজে দিচ্ছে, প্রত্যেক কর্মী ও তাদের বিবরণী, ছবি-সব উল্লেখ থাকে।  এতে বুঝতে সুবিধা হবে প্রতিষ্ঠানটি কোন ধরনের কাজ করে এবং আপনি এ কাজ করতে আগ্রহী কিনা।
এছাড়া আপনার কোনো বন্ধু যদি ভলেন্টিয়ার হিসাবে কাজ করে থাকে তার থেকে সাহায্য নিতে পারেনঃ সর্বোপরি  নিজের ভালো দিকগুলো নির্ণয় করতে হবে।
কেউ লেখালেখি করতে পছন্দ করে, কেউ বা দূর্যোগ কবলিত এলাকার মানুষকে সাহায্য করতে পছন্দ করে। খুঁজে বের করতে হবে নিজের সুপ্ত প্রতিভা। প্রতিটা মানুষ স্পেশাল এবং সবার কোন না কোন বিশেষ দক্ষতা আছে। ভলেন্টিয়ার কাজ হলো নিজের সেই দক্ষতাকে সমাজের কাজে ব্যবহার করা।

বাংলাদেশে ভলেন্টিয়ারিং কাজের যথেষ্ঠ সুজোগ আছেঃ যে প্রতিষ্ঠানগুলোয় ভলেন্টিয়ার হিসেবে কাজ করা যায় তার কিছু লিস্ট আমরা দিচ্ছি আপনাদের সহযোগিতার জন্যে।

ট্র্যান্সপারেন্সি ইন্ট্রারন্যশনাল বাংলাদেশ

জাগো ফাউন্ডেশন

ব্র্যাক

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি

গার্লস গাইড

রোভার স্কাউট

সন্ধানী

বাংলাদেশ ইউনিসেফ

সেভ দ্যা চিলড্রেন

হিউম্যান এইড ফাউন্ডেশন

কিউরিস

ICDDRB

হার্ট টু হার্ট ফর হিউম্যানিটি বাংলাদেশ

পরিবর্তন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন

মজার স্কুল

বাঁধন ( BUET)

কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন

WSIF ( Women support initiative forum)

কান পেতে রই

প্রচেষ্টা ফুড ব্যাংক

মেঘ ফাউন্ডেশন (লক্ষ্মীপুর)

Red Cross

UNICEF

WHO (World Health Organization)

Save the চিল্ড্রেন, ইত্যাদি।

সবাইকে বেস্ট অফ লাক জানাচ্ছি। সবার ভলেন্টিয়ারিং কার্যক্রম শুভো হোক এই প্রত্যাশা রইলো।

আর আপনারা কোথাও জয়েন করতে চাইলে আমাদের সাহায্য নিতে পারেন। যেখানেই থাকেন আমাদের কমেন্ট করে জানান কোন প্রতিষ্ঠানে আপনি কাজ করতে আগ্রহ। আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেস্টা করবো আপনাকে সাপোর্ট দেয়ার।
এমনকি চাইলে আমাদের সাথেও কাজ করতে পারেন।
ভালো থাকবেন সবাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *